আল্লাহুম্মাকফিনী বিহালালিকা আন হারামিকা

আল্লাহুম্মাকফিনী বিহালালিকা আন হারামিকা

বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম. আজকের আলোচনার বিষয় হচ্ছে আল্লাহুম্মাকফিনী বিহালালিকা আন হারামিকা

আল্লাহুম্মাকফিনী বিহালালিকা আন হারামিকা

উচ্চারণআল্লাহুম্মাকফিনী বিহালালিকা আন হারামিকা ওয়া আগনিনী বিফাজলিকা আম্মান সিওয়াকা।
অর্থ“হে আল্লাহ! আমাকে তোমার হালাল রিজিক দ্বারা হারাম রিজিক থেকে পরিপূর্ণ করে দাও এবং তোমার অনুগ্রহ দ্বারা আমাকে তোমার ব্যতীত অন্য কারো মুখাপেক্ষী করো না।”

অর্থ ব্যাখ্যা

এই দোয়াটিতে আমরা আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করছি যে তিনি আমাদেরকে হালাল রিজিক দ্বারা পরিপূর্ণ করে দিন এবং হারাম রিজিক থেকে দূরে রাখুন। তিনি যেন আমাদেরকে তাঁর অনুগ্রহ দ্বারা এমনভাবে স্বাবলম্বী করে তোলেন যে আমরা অন্য কারো মুখাপেক্ষী না হই।

এই দোয়াটি পবিত্র কোরআনের সুরা বাকারার ২৬৮ নম্বর আয়াতে বর্ণিত হয়েছে। এই আয়াতটিকে “আয়াতুল মাগফিরাত” বলা হয়। এটি কোরআনের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ আয়াতগুলির মধ্যে একটি।

এই দোয়াটি পাঠ করলে আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে হালাল রিজিক দান করবেন এবং হারাম রিজিক থেকে দূরে রাখবেন। তিনি আমাদেরকে তাঁর অনুগ্রহ দ্বারা এমনভাবে স্বাবলম্বী করে তুলবেন যে আমরা অন্য কারো মুখাপেক্ষী না হব।

এই দোয়াটি পাঠ করার পাশাপাশি আমরা নিম্নলিখিত বিষয়গুলিতে সতর্ক থাকতে পারি:

  1. আমরা যেন শুধুমাত্র হালাল উপায়ে রিজিক অর্জন করি।
  2. আমরা যেন হারাম রিজিক থেকে দূরে থাকি।
  3. আমরা যেন আল্লাহর উপর ভরসা রাখি এবং তাঁর সাহায্য চাই।

এই বিষয়গুলিতে সতর্ক থাকলে আমরা আল্লাহর রহমতে হালাল রিজিক দান পাব এবং হারাম রিজিক থেকে দূরে থাকতে পারব।

google News

পাহাড় সমান ঋণ থেকে মুক্তির দোয়া

উচ্চারণ“আল্লাহুম্মা ইন্নি আউযু বিকা মিনাল হাম্মি ওয়াল হাজানি ওয়া আউযু বিকা মিনাল আজজি ওয়াল কাসালি ওয়া আউযু বিকা মিনাল বুখলি ওয়াল জুবনি ওয়া আউযু বিকা মিন গালাবাতদ্দাইনি ওয়া কাহরিররিজালি।”
অর্থ“হে আল্লাহ! আমি তোমার কাছে দুঃখ, চিন্তা, অক্ষমতা, কাপুরুষতা, কৃপণতা, ঋণের বোঝা এবং মানুষের অত্যাচার থেকে আশ্রয় চাই।”

পাহাড় সমান ঋণ থেকে মুক্তির দোয়া

উচ্চারণ“আল্লাহুম্মা ফাফরিগল হামমা ওয়া কাশফিল গামমা ওয়া আকসিল যাককা ওয়া আছবাহনি গানিয়ার রাগিবিন ওয়া গাফুরাল মাফুউলিন।”
অর্থ“হে আল্লাহ! তুমি আমার দুঃখ দূর করো, আমার চিন্তা দূর করো, আমার ঋণ পরিশোধ করো এবং আমাকে সকালে স্বাবলম্বী, ক্ষমাপ্রাপ্ত এবং ঋণমুক্ত করে দাও।”

অর্থ ব্যাখ্যা:

এই দোয়াটিতে আমরা আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করছি যে তিনি আমাদের দুঃখ, চিন্তা, অক্ষমতা, কাপুরুষতা, কৃপণতা, ঋণের বোঝা এবং মানুষের অত্যাচার থেকে আমাদেরকে রক্ষা করুন। তিনি যেন আমাদেরকে সকালে স্বাবলম্বী, ক্ষমাপ্রাপ্ত এবং ঋণমুক্ত করে দেন।

এই দোয়াটি পাঠ করলে আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে দুঃখ, চিন্তা, অক্ষমতা, কাপুরুষতা, কৃপণতা, ঋণের বোঝা এবং মানুষের অত্যাচার থেকে রক্ষা করবেন। তিনি আমাদেরকে সকালে স্বাবলম্বী, ক্ষমাপ্রাপ্ত এবং ঋণমুক্ত করে দেবেন।

এই দোয়াটি পাঠ করার পাশাপাশি আমরা নিম্নলিখিত বিষয়গুলিতে সতর্ক থাকতে পারি

  1. আমরা যেন শুধুমাত্র হালাল উপায়ে ঋণ গ্রহণ করি।
  2. আমরা যেন ঋণ পরিশোধের জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করি।
  3. আমরা যেন আল্লাহর উপর ভরসা রাখি এবং তাঁর সাহায্য চাই।

এই বিষয়গুলিতে সতর্ক থাকলে আমরা আল্লাহর রহমতে ঋণ থেকে মুক্তি পেতে পারব।

আরবিاللَّهُمَّ اكْفِني بِحَلاَلِكَ عَنْ حَرَامِكَ ، وَأغْنِنِي بِفَضْلِكَ عَمَّنْ سِواكَ
উচ্চারণআল্লাহুম্মাকফিনী বিহালালিকা আন হারামিকা ওয়া আগনিনী বিফাজলিকা আম্মান সিওয়াকা।
অর্থহে আল্লাহ! আমাকে তোমার হালাল রিজিক দ্বারা হারাম রিজিক থেকে পরিপূর্ণ করে দাও এবং তোমার অনুগ্রহ দ্বারা আমাকে তোমার ব্যতীত অন্য কারো মুখাপেক্ষী করো না।

এই দোয়াটি পাঠ করলে আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে হালাল রিজিক দান করবেন এবং হারাম রিজিক থেকে দূরে রাখবেন। তিনি আমাদেরকে তাঁর অনুগ্রহ দ্বারা এমনভাবে স্বাবলম্বী করে তুলবেন যে আমরা অন্য কারো মুখাপেক্ষী না হব।

শেয়ার করুন
Facebook
WhatsApp
Twitter
Email
LinkedIn
আমার সম্পর্কে
Hello Moon

Hello Moon

আস-সালামু আলাইকুম, আমি মুন। ইসলামিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আপনার পাশে থাকার তীব্র ইচ্ছা আমার। আপনিও Hellomoon.me কে নিয়মিত ভিজিট করে আমাকে পাশে রাখুন। 

ধন্যবাদ