আল্লাহর ৯৯ নাম বাংলায়

আল্লাহর ৯৯ নাম বাংলায়

বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম. আজকের আলোচনার বিষয় হচ্ছে আল্লাহর ৯৯ নাম বাংলায়

আল্লাহর ৯৯ নাম বাংলায়

আল্লাহর ৯৯টি নামকে আসমাউল হুসনা বা সুন্দরতম নামসমূহ বলা হয়। এই নামগুলি কুরআন ও হাদিসে বর্ণিত হয়েছে। আল্লাহ্‌র এই নামগুলি তাঁর গুণাবলী ও বৈশিষ্ট্যসমূহের প্রতিফলন ঘটায়।

আল্লাহর ৯৯ নাম বাংলায় তালিকা

নামঅর্থ
আল্লাহএকমাত্র উপাস্য, সৃষ্টিকর্তা, পালনকর্তা
আর-রহমানপরম দয়ালু, কল্যাণময়
আর-রহিমঅতিশয় মেহেরবান, দয়ালু
আল-মালিকসর্বকর্তৃত্বময়, অধিপতি, মালিক
আল-কুদ্দুসনিষ্কলুষ, পবিত্র
আস-সালামশান্তি, নিরাপত্তা, নিষ্কলুষতা
আল-মু’মিননিরাপত্তা ও ঈমান দানকারী
আল-মুহাইমিনপরিপূর্ন রক্ষণাবেক্ষণকারী, রক্ষক, অভিভাবক
আল-আজিজমহাপরাক্রমশালী, বিজয়ী
আল-জাব্বারজোরপূর্বক পূর্ণকারী, পরাক্রমশালী
আল-মুতাকাব্বিইরমহত্ত্বময়, সুমহান
আল-খালিকসৃষ্টিকর্তা
আল-বারীউদ্ভাবক
আল-মুসাওয়িররূপদানকারী
আল-গফুরক্ষমাশীল
আল-রাহীমপরম দয়ালু, কল্যাণময়
আল-মালিকুল কুদ্দুসপবিত্র অধিপতি
আস-সালামুল, মুমিনুল, মুহাইমিনুল, আযিজুল, জাব্বারুল, মুতাকাব্বির,শান্তিদানকারী, বিশ্বাসী, অভিভাবক, মহাপরাক্রমশালী, সুমহান
আল-খালিকুল, বারীয়ুল, মুসাওয়ির,সৃষ্টিকর্তা, উদ্ভাবক, রূপদানকারী
আল-গফুরুর, রাহীম,ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু, কল্যাণময়
আল-মালিকুল, হাকিমন্যায়পরায়ণ অধিপতি
আল-ওয়াদুদপ্রেমময়
আল-মালিকুলমহান অধিপতি
আল-হাফিজরক্ষক
আল-মুকীতমুক্তিদাতা
আল-হাসিবহিসাব গ্রহণকারী
আল-জ্বাব্বারুল ,মুতাকাব্বিরজোরপূর্বক পূর্ণকারী, সুমহান
আল-খালিকুল , মুসাওয়িরুল, গফুরুর ,রাহীমসৃষ্টিকর্তা, উদ্ভাবক, রূপদানকারী, ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু, কল্যাণময়
আল-মালিকুল ,হালিমসহনশীল অধিপতি
আল-আযিমমহান
আল-গাফুরুর ,রাহীমক্ষমাশীল, পরম দয়ালু, কল্যাণময়
আল-শাহিদসাক্ষী
আল-হাকিমন্যায়পরায়ণ
আল-ওয়াদুদুল ,মাজিদপ্রেমময়, মহত্ত্বময়
আল-বারীয়ুল, মুসাওয়িরুল,গফুরুর ,রাহীমউদ্ভাবক, রূপদানকারী, ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু, কল্যাণময়
আল-হালিমুল ,গাফুরুর, রাহীমসহনশীল, ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু, কল্যাণময়
আল-আযিমুল, গাফুরুর, রাহীমমহান, ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু, কল্যাণময়
আল-শাহিদুল, হাকিমসাক্ষী, ন্যায়পরায়ণ
আল-ওয়াদুদুল, রাহীমপ্রেমময়, মহত্ত্বময়, ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু, কল্যা

আল্লাহর ৯৯ নাম বাংলায় অর্থ সহ ফজিলত

আল্লাহর ৯৯ নামের ফজিলত

আল্লাহর ৯৯ নামের প্রতিটি নামের রয়েছে অসংখ্য ফজিলত ও বরকত। এই নামগুলির জিকির করলে আল্লাহ্‌র সন্তুষ্টি লাভ করা যায়, গুনাহ মাফ হয়, দুনিয়া ও আখিরাতে কল্যাণ লাভ হয়।

কিছু নির্দিষ্ট নামের ফজিলত

  • আল্লাহ নামের ফজিলত: এই নামের জিকির করলে আল্লাহ্‌র কাছে মর্যাদার আসন লাভ হয়।
  • আর-রহমান নামের ফজিলত: এই নামের জিকির করলে আল্লাহ্‌র রহমত লাভ হয়।
  • আর-রহিম নামের ফজিলত: এই নামের জিকির করলে আল্লাহ্‌র দয়া লাভ হয়।
  • আল-মালিক নামের ফজিলত: এই নামের জিকির করলে আল্লাহ্‌র একত্ব ও ক্ষমতার উপর বিশ্বাস বৃদ্ধি পায়।
  • আল-কুদ্দুস নামের ফজিলত: এই নামের জিকির করলে আল্লাহ্‌র পবিত্রতা ও মহত্ত্ব অনুভূত হয়।
  • আস-সালাম নামের ফজিলত: এই নামের জিকির করলে আল্লাহ্‌র নিরাপত্তা ও শান্তি লাভ হয়।

আল্লাহর ৯৯ নাম জিকির করার পদ্ধতি

আল্লাহর ৯৯ নাম জিকির করার জন্য নির্দিষ্ট কোনো পদ্ধতি নেই। তবে, সাধারণভাবে প্রতিদিন সকালে ও সন্ধ্যায় এই নামগুলি জিকির করা ভালো। প্রতিটি নাম কমপক্ষে ১০ বার বা ৩৩ বার জিকির করা যেতে পারে।

আল্লাহর ৯৯ নাম জিকির করার জন্য কোনো নির্দিষ্ট স্থানেরও প্রয়োজন নেই। যেকোনো স্থানে, যেকোনো সময় এই নামগুলি জিকির করা যায়।

আল্লাহর ৯৯ নাম জিকির করার জন্য নিম্নলিখিত পদ্ধতিটি অনুসরণ করা যেতে পারে:

১. প্রথমে পবিত্রতা অর্জন করা। ২. দুই রাকাত নফল নামাজ আদায় করা। ৩. নামাজের পর আল্লাহর ৯৯ নাম জিকির করা।

জিকির করার সময় মনকে আল্লাহর দিকে নিবদ্ধ রাখা এবং আন্তরিকতার সাথে আল্লাহর নামসমূহ উচ্চারণ করা উচিত।

google News

আল্লাহর ৯৯ নাম জিকির করার উপকারিতা

আল্লাহর ৯৯ নাম জিকির করার অনেক উপকারিতা রয়েছে। এর মধ্যে কিছু উপকারিতা নিম্নরূপ:

  • আল্লাহ্‌র সন্তুষ্টি লাভ হয়।
  • গুনাহ মাফ হয়।
  • দুনিয়া ও আখিরাতে কল্যাণ লাভ হয়।
  • মনে শান্তি ও প্রশান্তি আসে।
  • ইবাদতের প্রতি আগ্রহ বৃদ্ধি পায়।
  • আল্লাহ্‌র সাথে সম্পর্ক দৃঢ় হয়।

তাই, প্রত্যেক মুসলমানের উচিত আল্লাহর ৯৯ নাম জিকির করা।

আল্লাহর ৯৯ নাম বাংলায়

আল্লাহর ৯৯ নাম

১. আল্লাহ

অর্থ: একমাত্র উপাস্য, সৃষ্টিকর্তা, পালনকর্তা

২. আর-রহমান

অর্থ: পরম দয়ালু, কল্যাণময়

৩. আর-রহিম

অর্থ: অতিশয় মেহেরবান, দয়ালু

৪. আল-মালিক

অর্থ: সর্বকর্তৃত্বময়, অধিপতি, মালিক

৫. আল-কুদ্দুস

অর্থ: নিষ্কলুষ, পবিত্র

৬. আস-সালাম

অর্থ: শান্তি, নিরাপত্তা, নিষ্কলুষতা

৭. আল-মু’মিন

অর্থ: নিরাপত্তা ও ঈমান দানকারী

৮. আল-মুহাইমিন

অর্থ: পরিপূর্ন রক্ষণাবেক্ষণকারী, রক্ষক, অভিভাবক

৯. আল-আজিজ

অর্থ: মহাপরাক্রমশালী, বিজয়ী

১০. আল-জাব্বার

অর্থ: জোরপূর্বক পূর্ণকারী, পরাক্রমশালী

১১. আল-মutakabbir

অর্থ: মহত্ত্বময়, সুমহান

১২. আল-খালিক

অর্থ: সৃষ্টিকর্তা

১৩. আল-বারী

অর্থ: উদ্ভাবক

১৪. আল-মুসাওয়ির

অর্থ: রূপদানকারী

১৫. আল-গফুর

অর্থ: ক্ষমাশীল

১৬. আল-রাহীম

অর্থ: পরম দয়ালু, কল্যাণময়

১৭. আল-মালিকুল কুদ্দুস

অর্থ: পবিত্র অধিপতি

১৮. আস-সালামুল মুমিনুল মুহাইমিনুল আযিজুল জাব্বারুল মুতাকাব্বির

অর্থ: শান্তিদানকারী, বিশ্বাসী, অভিভাবক, মহাপরাক্রমশালী, সুমহান

১৯. আল-খালিকুল বারীয়ুল মুসাওয়ির

অর্থ: সৃষ্টিকর্তা, উদ্ভাবক, রূপদানকারী

২০. আল-গফুরুর রাহীম

অর্থ: ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু, কল্যাণময়

২১. আল-মালিকুল হাকিম

অর্থ: ন্যায়পরায়ণ অধিপতি

২২. আল-ওয়াদুদ

অর্থ: প্রেমময়

২৩. আল-মালিকুল কবির

অর্থ: মহান অধিপতি

২৪. আল-হাফিজ

অর্থ: রক্ষক

২৫. আল-মুকীত

অর্থ: মুক্তিদাতা

২৬. আল-হাসিব

অর্থ: হিসাব গ্রহণকারী

২৭. আল-জ্বাব্বারুল মুতাকাব্বির

অর্থ: জোরপূর্বক পূর্ণকারী, সুমহান

২৮. আল-খালিকুল বারীয়ুল মুসাওয়িরুল গফুরুর রাহীম

অর্থ: সৃষ্টিকর্তা, উদ্ভাবক, রূপদানকারী, ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু, কল্যাণময়

২৯. আল-মালিকুল হালিম

অর্থ: সহনশীল অধিপতি

৩০. আল-আযিম

অর্থ: মহান

৩১. আল-গাফুরুর রাহীম

অর্থ: ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু, কল্যাণময়

৩২. আল-শাহিদ

অর্থ: সাক্ষী

৩৩. আল-হাকিম

অর্থ: ন্যায়পরায়ণ

৩৪. আল-ওয়াদুদুল মাজিদ

অর্থ: প্রেমময়, মহত্ত্বময়

শেয়ার করুন
Facebook
WhatsApp
Twitter
Email
LinkedIn
আমার সম্পর্কে
Hello Moon

Hello Moon

আস-সালামু আলাইকুম, আমি মুন। ইসলামিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আপনার পাশে থাকার তীব্র ইচ্ছা আমার। আপনিও Hellomoon.me কে নিয়মিত ভিজিট করে আমাকে পাশে রাখুন। 

ধন্যবাদ